পাতা

প্রকল্প

০১। েসেকন্ডারী এডুেকশান েকায়ািলিট এন্ড অ্যাকেসস এনহান্সেমন্ট প্রেজক্ট(েসকােয়প)
০২। উচচ মাধ্যমিক পর্যায়ে ছাত্রীদের উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্প-৪
০৩। টিচিং কোয়ালিটি ইম্প্রোভমেন্ট প্রজেক্ট।

গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প

(মাধ্যমিক পর্যায়ে ৬ষ্ঠ - ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত এবং উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে

একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত) উপবৃত্তি প্রদান।

 

(ক) মাধ্যমিক পর্যায়ে (বিদ্যালয় / মাদ্রাসা) ভর্তিকৃত শ্রেণী ভিত্তিক ছাত্রীদের ৩০% এবং ছাত্রদের ১০% প্রকল্পের শর্ত মোতাবেক অতি দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে উপবৃত্তি ও প্রকল্প ভূক্ত প্রতিষ্ঠানে টিউশন ফি প্রদান করা হয়ে থাকে।

অতি দরিদ্র শিক্ষার্থী নির্বাচনের সাধারণ মানদন্ড সমূহঃ

(১) শিক্ষার্থীর পিতা/ অভিভাবক ৫০ শতাংশের কম ভূমির মালিক; (২) পিতা/অভিভাবকের বার্ষিক আয় ৩০,০০০/- টাকার নিচে; (৩) দুস্থ অসহায় গোষ্ঠী (যেমনঃ এতিম, অনাথ); (৪) অস্বচ্ছল মুক্তিযোদ্ধার সন্তান; (৫) উপার্জনের অসমর্থ/ বিকলাঙ্গ (যেমনঃ পঙ্গু, অন্ধ, বোবা ইত্যাদি) পিতা/মাতার সন্তান; (৬) নদী ভাঙ্গন কবলিত / বাস্ত্তহারা ও  অস্বচ্ছল  পরিবারের  সন্তান; (৭) নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী (যেমনঃ রিক্সাচালক, দিনমজুর ইত্যাদি) অভিভাবকের সন্তান এবং (৮) সকল চরম প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী।

দরিদ্র শিক্ষার্থীর নির্বাচনের পর উপবৃত্তির প্রাপ্তির যোগ্যতাঃ

(ক) শিক্ষাবর্ষে ন্যূনতম গড়ে ৭৫% ক্লাসে উপস্থিতি; (খ) ৬ষ্ঠ-৭ম শ্রেণিতে বার্ষিক পরীক্ষায় ন্যূনতম গড়ে ৩৩% নম্বর অর্জন, ৮ম-৯ম শ্রেণিতে বার্ষিক পরীক্ষায় ন্যূনতম গড়ে ৪০% নম্বর/GPA ২.০০ অর্জন এবং ১০ম শ্রেণিতে শিক্ষাবোর্ডের নিয়মানুসারে নির্বাচনী পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়া এবং (গ) এসএসসি/দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করা পর্যন্ত অবিবাহিত থাকা।

(খ) উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে (কলেজ / মাদ্রাসা)ঃ

উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণীর ভর্তিকৃত ছাত্রীদের ৪০%, দরিদ্র মেধাবী ছাত্রীদের উপবৃত্তি ও প্রকল্প ভূক্ত প্রতিষ্ঠানের মাঝে টিউশন ফি প্রদান করা হয়ে থাকে।


Share with :

Facebook Twitter